Thursday, 9 February 2012

এবার বাংলাদেশি কিশোর নির্যাতনে বিএসএফ

জেলা সংবাদদাতা
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার বেণীপুর সীমান্ত থেকে বাংলাদেশি ছয় কিশোরকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) সদস্যরা।

এদের মধ্যে বিএসএফের নির্যাতনের শিকার হাবিবুর রহমান ওরফে হারান কৌশলে পালিয়ে এলেও বাকি কিশোররা এখনও বিএসএফের কাছে বন্দি।

হারানকে মুমূর্ষু অবস্থায় যশোর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কুসুমপুর ক্যাম্প বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের (বিজিবি) কমান্ডার রেজাউল করীম বাংলানিউজকে জানান, জেলার জীবননগর উপজেলার কয়া গ্রামের সলেমান আলীর ছেলে খায়রুল ইসলাম (১৭), আশাদুল ইসলামের ছেলে সুমন (১৬), আবুল কালামের ছেলে লাল্টু (১৫), রমজান আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (১৬), মুছাবারির ছেলে হাবিবুর রহমান ওরফে হারান এবং ধান্যখোলা গ্রামের মল্লিক মণ্ডলের ছেলে ইছাহক আলী সোমবার রাতে উপজেলার বেণীপুর সীমান্ত দিয়ে গরু আনার জন্য ভারতে অবৈধভাবে যাওয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় বিএসএফ নোনাগঞ্জ ক্যাম্পের সদস্যরা তাদেরকে সীমান্ত থেকে জোরপূর্বক ধরে ক্যাম্পে নিয়ে নির্যাতন করে।

এদের মধ্যে বিএসএফের নির্যাতনের শিকার হাবিবুর রহমান ওরফে হারান বুধবার সন্ধ্যায় কৌশলে পালিয়ে এলে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে যশোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিএসএফের হাতে আটক বাকি পাঁচজনের ভাগ্যে কী ঘটেছে তা নিয়ে তাদের পরিবারের সদস্যরা অনিশ্চয়তায় দিন কাটাচ্ছে। রেজাউল করীম আরও জানান, ওই পাঁচজনকে ভারতের মোনাগঞ্জ ক্যাম্প বিএসএফ আটক করে কোর্টে চালান দিয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

৩৫ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল সুলতান আহম্মেদ বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন বিএসএফ তাদের ভারতীয় পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে।

জীবননগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জি.জি. বিশ্বাস বাংলানিউজকে জানান, তিনি এ ধরনের কোনো সংবাদ পাননি।

বাংলাদেশ সময় : ০৯২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০১২

No comments:

Post a Comment

Post a Comment